তৃনমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত আঙ্গারিয়া – জখম উভয় পক্ষের ৯ জন।

0
11

নরেশ ভকত::২৪ঘন্টা লাইভ ::১৮ই জুলাই :: বাঁকুড়া :: কয়েকদিন ধরেই জয়পুর ব্লকের বৈতল আঙ্গারিয়া এবং উত্তর বারে রাজনৈতিক পারদ চরতে থাকে । কার দখলে থাকবে এলাকা তা নিয়ে তৃনমূলের দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে। ঘটনা বাঁকুড়ার জয়পুর থানার আঙ্গারিয়া গ্রামে। গতকাল রাতে দফায় দফায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠে এলাকা। ঘটনায় দুপক্ষের জখম ৯ জন। আহতরা চিকিতসাধীন বিষ্ণুপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে।

জানা গেছে বেশ কয়েক দিন ধরেই এলাকা কার দখলে থাকবে তা নিয়ে ঠান্ডা লড়াই চলছিল তৃনমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে।৷ গতকাল রাতে বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে তৃনমুলের দুটি গোষ্ঠীর মধ্যে বচসা শুরু হয়। সেই বচসা থেকেই দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের চেহারা নেই। খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে জয়পুর থানার পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্তনে নিয়ে আসে। ঘটনায় দুপক্ষের আহত ৯ জন তাদের প্রথমে নিয়ে যাওয়া জয়পুর প্রাথমিক স্থাস্থ্য কেন্দ্রে পরে নিয়ে আসা হয় বিষ্ণুপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে। ঘটনা কে ঘিরে একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ পালটা অভিযোগ।

আহত তৃনমূলের এক গোষ্ঠীর দাবি, যারা এক সময় তৃনমূল করত কিন্তু ভোটের সময় বিজেপি কে সমর্থন করে ফের তারা এলাকায় নিজেদের অধিকার ফিরে পেতে মরিয়া হয়ে উঠে। এলাকায় ১০০ দিনের কাজে নতুন দের কোন সুযোগ দিচ্ছিল না তারা। গতকাল রাতে এই বিষয় নিয়ে তারা চড়াও হয়ে লাঠি টাঙ্গি নিয়ে আমাদের উপর চড়াও হয় এবং আমাদের ৪ জন কর্মী জখম হয়।উল্লেখ থাকে যে গত তিনদিন আগেই উত্তর বার অঞ্চল প্রধান দিলীপ ঘোষকে পঞ্চায়েতের ভেতর বেধড়ক মারধর করে তৃণমূলের একটা গোষ্ঠী জব কার্ডের কাজ নিয়ে গন্ডগোল কে কেন্দ্র করে উত্তেজনা চরমে পৌঁছায় উত্তর বার গ্রাম পঞ্চায়েতে উভয়পক্ষই তৃণমূল বলে দাবি করছে ।

Advertisement

তৃণমূলের পক্ষ থেকেএই মারধরের ঘটনায় দায় অস্বীকার করেছেন । জয়পুর তৃনমূল কংগ্রেসের ব্লক সভাপতি তিনি অভিযোগের তীর সিপিএম এবং আরএসএস এর দিকে তোলেন । এবং গতকালের ঘটনা জয়পুর ব্লক সভাপতি ইয়ামিন শেখ জানান দীর্ঘদিনের পারিবারিক বিবাদের জেরে ঘটনাটি ঘটেছে উভয়পক্ষই তৃণমূল কর্মী তিনি আরো বলেন পুলিশ কে বলেছি যারা দোষী ব্যক্তি তাদের উপযুক্ত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে।

অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা অপর তৃনমূল গোষ্ঠীর দাবি, গ্রামে একসাথে তৃনমূল করতাম সকলে। কিন্তু তৃনমূলের নাম করে এক গোষ্ঠী বিভিন্ন ভাবে লুটে পুটে আত্মসাথ করছিল সরকারী টাকা এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে আমরা আক্রান্ত হয়েছি। গতকাল রাতে আমাদের উপর চড়াও হয়ে বেধড়ক মারধর করে এবং ৫ জন তৃনমূল কর্মী জখম হন বলেই দাবি করেন অপর গোষ্ঠীর লোকজন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here