প্রয়াত হলেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কংগ্রেসের সভাপতি সোমেন মিত্র। রাজ্যে নেতৃত্বের সংকটে পড়লো কংগ্রেস দল !

0
22

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: ২৪ ঘন্টা লাইভ :: ৩০ শে জুলাই :: কোলকাতা :: জাতীয় কংগ্রেসের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সভাপতি সোমেন মিত্র হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন । বুধবার রাত ১টা ৫০ মিনিটের দিকে কলকাতার বেসরকারি হাসপাতাল বেলবিউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান সোমেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর।

 

সোমেন মিত্রের জন্ম যশোরে, ১৯৪১ সালে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী শিখা মিত্র ও একমাত্র ছেলে রোহন মিত্রসহ বহু আত্মীয়-পরিজন ও গুণগ্রাহীকে রেখে গেছেন। ১৭ জুলাই হৃদরোগ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সোমেন বাবু । হাসপাতালে শ্বাস-প্রশ্বাসের কষ্ট দেখা দিলে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষায় ফল আসে নেগেটিভ। চিকিৎসকেরা তাঁর শরীরে থাকা পুরোনো পেসমেকার বদলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু শারীরিক অবস্থার অবনতির প্রেক্ষাপটে এই ঝুঁকি না নিয়ে চিকিৎসকেরা তাঁর ডায়ালাইসিস করেন। তাঁকে হাসপাতালের আই সি ইউতে রাখা হয়েছিল।

সোমেন ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ জাতীয় কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি। ২০১৮ সালে এই দায়িত্ব পান তিনি। রাজ্য বিধানসভার শিয়ালদহ আসনের দীর্ঘদিনের বিধায়ক। ২০০৭ সালে সোমেন কংগ্রেস ছেড়ে গড়েছিলেন প্রগতিশীল ইন্দিরা কংগ্রেস। একপর্যায়ে সেখান থেকে যোগ দেন তৃণমূল কংগ্রেসে। ২০০৯ সালে তৃণমূলের টিকিটে তিনি ডায়মন্ড হারবার আসনের সাংসদ হয়েছিলেন। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে তিনি ফিরে আসেন কংগ্রেসে। সেই থেকে তিনি আমৃত্যু কংগ্রেসেই ছিলেন।

সোমেনের মৃত্যুতে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক মহলে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ সোমেনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। কেন্দ্রীয় কংগ্রেস নেতৃবৃন্দ থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাজ্যের কংগ্রেস নেতারা শোকবার্তা দিয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকালে সোমেনের মরদেহ প্রথমে তাঁর কলকাতার বাসভবনে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখান থেকে রাজ্য কংগ্রেস কার্যালয়ে। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তাঁর মরদেহ কলকাতার নিমতলা মহাশ্মশানে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানেই সম্পন্ন হবে তাঁর শেষকৃত্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here