সুবোধই ভরসা উচ্চ নেতৃত্বের, এবার দায়ীত্ব “ব্যারাকপুরে লোকসভা ইনচার্জ” !

0
135

রাজীব গুপ্তা :: ২৪ ঘন্টা লাইভ :: ৩১শে জুলাই :: নৈহাটী :: সম্প্রতি ২০২১ এর নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজ্য জুড়েই তৃণমূল কংগ্রেস তাদের সাংগঠনিক রদবদল করেছে। এর ফলে উত্তর 24 পরগনা তে ও দেখা গেল এরকম কিছু পরিবর্তন।

এবার বিধায়ক পার্থ ভৌমিক কে যুব সভাপতির পদ থেকে সরাসরি দলের রাজ্য কমিটির সদস্য মানে পার্থ ভৌমিক কে দলের মুখপাত্র করে নেওয়া হয়। ফলে দৃশ্যতই পার্থ বাবু দলের মধ্যে একটি সম্মানজনক পর্যায়ে পৌঁছে গেলেন। আর সাথেসাথেই দলের দাপুটে নেতা সুবোধ অধিকারীকে ব্যারাকপুর লোকসভা অঞ্চলের অধ্যক্ষ (Incharge) করা হলো।

সুবোধ বাবুর এই উত্তরণ কিন্তু মোটেই সহজ ছিলোনা। আমরা ফিরেযাবো ২০১৯ এর ২৩শে মে বিজেপি বাংলায় লোকসভা নির্বাচনে ক্ষমতা বৃদ্ধির পর। একে একে দাপুটে নেতারা বেশিরভাগই কেউ হয়তো ঘরে কোণঠাসা কিংবা কেউ কেউ বিজেপি শিবিরে নাম লেখান।

তারপর 15 ই জুন কাঁচড়াপাড়ায় আগমন হয় দলনেত্রীর, সেখানেই দলকে বিষম পরিস্থিতি থেকে উদ্ধার করতে দায়িত্ব নেন এই দাপুটে নেতা সুবোধ অধিকারী।

যেই সময় আশ্চর্য ভাবে নেতাদের তৃণমূল থেকে বিজেপিতে ঢোকার হিড়িক দেখা যেত, সেই সময় বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে আসার মতন সাহস দেখিয়েছিলেন সুবোধ বাবু।

দলে যোগদানের পর তাকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেয়া হয় উত্তর 24 পরগনার জেলা জুড়ে।

যখন সেই মোদী ম্যাজিকের আবহে একেএকে বেহাত হয়ে গিয়েছিল পৌরসভাগুলি ।

চারদিকে কোনঠাসা অবস্থা, ঠিক তখনই নিজের অনুগামীদের নিয়ে রুখে দাঁড়ান সুবোধ বাবু। এরপরের ঘটনা পাঠকদের জানা। সেই দুরূহ পরিস্থিতিকে নিজের অনুকূলে নিয়ে এসে নৈহাটি, ভাটপাড়া, হালিশহর, কাঁচরাপাড়া ও গারুলিয়া কে আবার নিজের ক্যারিশমায় আয়ত্তে এনে তৃণমূল নেতৃত্বকে বুঝিয়ে দিলেন দাবাং নেতা অর্জুনের সামনে একমাত্র দাবার চাল সুবোধ অধিকারীই।

কাহিন বলার মতো আরও আছে হালিশহর পুরসভাকে বেলাইন থেকে লাইনে আন্তে সুবোধ দিলেন আর একটা মাস্টার স্ট্রোক। হালিশহর পুরসভার প্রশাসক হিসাবে নিয়ে এলেন তরুণ তুর্কি নেতা রাজু সাহনিকে। এখন রাজুবাবু তাঁর সক্রিয় প্রচেষ্টায় পৌর সভার হাল ফেরাতে বদ্ধপরিকর। রাজুবাবু নিজেই গ্রাউন্ড জিরোতে দাঁড়িয়ে হালিশহরে উন্নয়নের জন্য লড়ছেন সুবোধবাবুর সহযোগিতায়।

Advertisement

ব্যারাকপুর থেকে কাঁচরাপাড়ায় কর্মী সমর্থকরা একবাক্যেই বলছেন তৃণমূল দল যোগ্য নেতৃত্বের হাতেই সঞ্চালন ক্ষমতা দিয়েছে। তাঁদের আশা আগামী দিনে এলাকায় শান্তি ফিরবে উন্নয়নের পথ ও সুবোধ অধিকারীর হাত ধরেই আবার এগিয়ে যাবে দলের বিজয় রথ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here